আঞ্জুমান আরা

আমি খুব কম মানুষের সাথেই ফোনে কথা বলি, যদি না তারা আমার খুব পছন্দের অথবা কাছের মানুষ হয়। ফোন দিলেও ধরি না।

ঘটনা ১

কয়েকদিন আগে এক ছেলে বাংলাদেশ থেকে আমাকে টেক্সট করে বলে

“আমার কিছু কথা আছে আপনার সাথে” ।

যেহেতু অনেকেই লন্ডনে আসতে পরামর্শ চায় আমি ভেবে নিয়েছিলাম এই রকমই কিছু একটা হবে হয়তো।
আমি তাকে বলি-

আমি এখন কাজে, আপনি রাতে আমাকে নক দিয়েন।

যথারীতি, উনি আমাকে ফোন দিয়ে বসেন। সেদিন কেন জানি আমি ফোনটা ধরে ফেলি এবং জিজ্ঞাস করি -জ্বী বলেন কী সমস্যা?  উনি বলেন-

আমার সমস্যা হচ্ছে আপনার ছবি দেখার পরই আমার ‘মাস্টারবেট’ করতে ইচ্ছা করে!!

লক্ষ করুন এটাই ছিলো তার সাথে আমার প্রথম এবং শেষ কথা।

আমি যেন হতভম্ব হয়ে গেলাম। মনে হলো আমার পায়ের ওপর দিয়ে বুঝি একটা বিষাক্ত সাপ দ্রুত কোথায় যেনো পালিয়ে গেলো। আমি জানিনা ওই ছেলে কী সুখ পেল আমাকে এই কথা বলে!!

ঘটনা ২

এবার আমি দেশে বাণিজ্য মেলায় ঘুরতে গেলাম। আমি হাঁটছি। হটাৎ এক লোক আমার কানের খুব কাছে এসে বললো ‘মনে চায় কামড় মারি‘!

আমি তাকিয়ে দেখি উনি আরেক নারীর হাত ধরে আছেন!! এবং দ্রুত সরে গেলো। মনে মনে ভাবলাম উনি কোথায় কামড় দিতে চাইল? আমার ঠোঁটে? নাকী আমার গালে নাকী আমার বুকে? এই এতটুকু কথায় ওনার কী সুখ পেলো এটা আমার মাথায় ঢুকবে না। আমি ভাবলাম এই সেই পুরুষ যে প্রেমিক হয়ে তার প্রেমিকাকে অথবা স্বামী হয়ে সে তার বউকে ধর্ষণ করবে প্রতিরাতে। তার স্ত্রী থাকবে তার কাছে প্লেজার মেশিন আর কিছু না।

সেইদিন আমার স্বাভাবিক হতে সময় লেগেছিলো অনেকক্ষণ। আমার দিনটাই যেনো মাটি করে দিয়েছিল ওই লোক।

ঘটনা- ৩

আমার এক্স স্বামীকে যখন লন্ডনের পুলিশ ধরে নিয়ে গেল। পুলিশ বললো তুমি কি জানো তোমার ১১ বছরের জেল হতে পারে তোমার বউকে ধর্ষণ করার অভিযোগে, যদি তোমার বউ তার স্টেটমেন্ট কোর্টে উঠাতে রাজী হয়?

ও তখন বিশ্রীরকম একটা হাসি দিয়ে বলেছিলো ‘বউকে আবার তার স্বামী ধর্ষণ করে কীভাবে!

এই হচ্ছে আমাদের বেশিরভাগ বাঙালি পুরুষদের চিন্তা ভাবনা। তারা জানেই না একজন বেশ্যা যখন টাকা নিয়েও আপনার ইচ্ছামতো আপনাকে সেবা দিতে রাজী হবে না, তখন তাকে দিয়ে জোড় করে কিছু করিয়ে নেয়ার নামই ধর্ষণ/ যৌন নির্যাতন।

একজন স্বামী যখন তার বউকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে তার সাথে শুতে বাধ্য করবেন তখন সভ্য সমাজে এটাকেই ধর্ষণ বলে এবং আপনি জেলের ভাত খাবেন।

একজন নারী রাস্তা দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় তাকে যে চোখ দিয়ে আপনারা ধর্ষণ করেন এটাও যৌন নির্যাতন। বাসে, মেলায়, অলিতে গলিতে যেখানে সেখানে নারীর শরীরকে যেভাবে আপনারা স্পর্শ করেন ওইগুলো সবই যৌন নির্যাতন। তাদেরকে নিয়ে যেই মন্তব্য করেন ওইগুলোও।

অন্যের শরীর আপনার সম্পত্তি নাহ।

তাই সুস্থ যৌনচর্চা করুন, কারণ ওটাতে স্বর্গের সুখ পাবেন।

তাই আমি বলি সব মেয়েরা বলে উঠুক –

“Stay out of my Vagina unless I want you there”
“Do not touch my body unless I wanted to be touched by you”

#Be outraged, #be rebellious and be brave.

Happy international women’s day.

আঞ্জুমান আরা এর ব্লগ   ২৭৯ বার পঠিত