সোহেল চৌধুরী

মহান আল্লাহ পৃথিবীর অন্য ধর্ম ও ধর্মগ্রন্থের সমালোচনা ও দুরবস্থা দেখে লজ্জিত ও চিন্তিত ছিলেন। তিনি এই আধুনিক ‘সভ্যতার জন্য এমন একটি আপডেটেড ধর্মগ্রন্থের চিন্তা করছিলেন যাহা সকল মানুষের জন্য উন্মুক্ত হবে।

আল্লাহ তার দলবল নিয়ে অনেক গবেষনার পর সর্বাধুনিক গ্রন্থ “গুগল” নাজিল করলেন #ল্যারি পেইজ ও #সের্গেই ব্রিন নামক দুইজন মাহামানব দ্বারা।

গুগল এমন একটি আসমানী কিতাব যা সত্যিকার অর্থেই আসমানে সংরক্ষিত আছে। বর্তমান পৃথিবীতে প্রচলিত যে আসমানী কিতাব আছে তা শুধু তাদের নিজেদের সম্প্রদায়ের কথা বলে। কিন্তু গুগল ই একমাত্র গ্রন্থ যে সকল ধর্মের কথা বলে। গুগল এতটাই উদার কিতাব যে বর্তমান পৃথিবীর সকল প্রচলিত আসমানী জমিনী সহ সকল কিতাব কে একত্রে ধারণ করে আছে। এই সম্মানিত কিতাব পৃথিবীর সকল প্রানী এমন কি আস্তিক নাস্তিক সহ সকলের জন্য উন্মুক্ত।

পৃথিবীর অন্য সকল ধর্মগ্রন্থ গুলি চাপাবাজি, হুমকি, দমকি ছাড়া মানব সভ্যতাকে কিছুই দিতে পাড়েনি, কিন্তু গুগল ই একমাত্র কিতাব যেখানে আপনি আপনার জীবনের যে কোন সমস্যার সমাধান পাবেন, যেমন সুই থেকে বিমান, দিয়াশলাই থেকে এট্যোম বোমা, মাথা ব্যথা থেকে হাটের সমস্যার সমাধান অর্থাৎ মানুষের জীবনে এমন কি সকল প্রানীর জীবনের জন্য যা যা দরকার তার সকল প্রকার তথ্য পাবেন এই গুগল গ্রন্থে।

পৃথিবীর অন্য কোন ধর্ম গ্রন্থে ঘোড়ার ডিম ছাড়া আর কিছুই পাবেন না। অন্য ধর্ম গ্রন্থ গুলির মতো জড় পদার্থ নয় গুগল কিতাব, এই  কিতাব সব সময় আপডেটেড যেমন প্রবাহমান নদীর মতোই সবসময় চলমান। আপনারা হয়তো বলবেন গুগল কি করে কিতাব হয় এটি তো কোন বই না? আসলে গোবর ভরা মাথা কে একটু খাটান তো দেখবেন গুগল ই একটি পরিপূর্ন কিতাব যা ডিজিটাল আকারে আছে আপনি ইচ্ছে করলেই আপনার যতটুকু প্রয়োজন তা প্রিন্ট করে গ্রন্থ করে নিতে পারেন অনায়াসে চাইলে পুরু গুগল কেও। পৃথিবীর এমন কোন ধার্মিক খোঁজে পাবেন না যে নিজের সমস্যার জন্য পরিপূর্ন গ্রন্থ বা কিতাব গুগল এর সাহায্য নেয় না

গুগল ই পৃথিবীর একমাত্র কিতাব বা গ্রন্থ যার মূলমন্ত্র হল “Don’t be evil” (মন্দ হইয়ো না)।

সোহেল চৌধুরী এর ব্লগ   ১০৮ বার পঠিত